1. admin@dainik71bangla.com : dainik71bangla.com :
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
স্কটল্যান্ড পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশী সিলেটের ফয়সল চৌধুরী রাজধানী ঢাকায় ভান্ডারিয়া উপজেলার ড্রীম বাংলা ফাউন্ডেশনের ইফতার মাহফিল আবারো পশ্চিম বাংলার মসনদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপদ্যায় আল কুরআনের খেদমত সবার ভাগ্যে থাকেনা – শাহ্ মোঃ ছাদিকুর রহমান নন্দীগ্রামে মমতা কে হারিয়ে শুভেন্দু জয়ী নন্দীগ্রামে ১২০১ ভোটে জয়ী মমতা ব্যানার্জি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ফের মমতা ব্যানার্জি সরকার গঠনে এগিয়ে ভান্ডারিয়ায় ড্রীম বাংলা ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদের সামগ্রী বিতরণ তাকবীরে তাহরীমা ও সালামের লামে মদ্দ করা সংক্রান্ত করোনাক্রান্তে বিশ্ব রেকর্ডে ভারত ৪ লক্ষ ছাড়িয়ে

প্রবাসী নারী প্রতারক স্বামীর ফাঁদে নির্যাতিত বিচার দাবিতে নান্দাইলে

তৌহিদুল ইসলাম সরকার:নান্দাইল ময়মনসিংহ।
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩২৬ বার পড়া হয়েছে

তৌহিদুল ইসলাম সরকার:ময়মনসিংহ,নান্দাইল।ভালোবেসে বিয়ে করে নগদ ৩০ লাখ টাকা, স্বর্ণালংকার সহ সর্বস্ব খুইয়েছেন সৌদি প্রবাসী নারী নুরজাহান।সৌদি আরবে অবস্থান করা অবস্থায় দু’জনের পরিচয়। সে সূত্র ধরে সোহাগ ও নুরজাহানের মধ্য হয় প্রেম ও বিয়ে। আট মাস।

সংসার করার মধ্যে বিভিন্র অজুহাতে নগদ ৩০ লাখ টাকা সহ স্ত্রীর জমানো টাকা ও ১০ ভরি সোনার গহনা নিয়ে পালিয়ে দেশে আসে প্রতারক কথিত স্বামী সোহাগ । খবর পেয়ে সপ্তাহ পর স্ত্রী নুরজাহান, স্বামী সোহাগের গ্রামের বাড়িতে এসে অবস্থান নিলে সেখানেই পার্শ্ববিক নির্যাতন ও মারধরের শিকার

হন। এ অবস্থায় পুলিশ নুরজাহানকে উদ্ধার করে নান্দাইল মডেল থানায় নিয়ে আসে। বর্তমানে ওই নারী আহত হয়ে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে ময়মনসিংহের নান্দাইলের জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ জাহাঙ্গীরপুরগ্রামে।

ভুক্তভোগী নারী নুরজাহানের সাথে কথা বলে ও তাঁর লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, টাঙ্গাইলের ভুয়াপুর উপজেলার মাইজবাড়ি গ্রামের মো. নূরুল ইসলামের কন্যা নুরজাহান বেগম গত প্রায় ১৪ বছর আগে সৌদি আরবে যায় কাজের সন্ধানে। সেখানে

একটি মাদ্রাসায় ও একটি হাসপাতালের কাজে যোগদান করেন নুরজাহান,এর মধ্যে পরিচয় হয়, ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার দক্ষিণ জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের, জজ মিয়ার পুত্র সোহাগ মিয়া (২৫) সঙ্গে। পরিচয়ের একপর্যায়ে দু’জনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠলে ২০২০ সালের ৪ মে তাদের বিয়ে

হয়।ভুক্তভোগী নারী নুরজাহান জানান, সংসার চলা অবস্থায় স্বামী সোহাগ দেশের বাড়িতে ঘর করার কথা বলে ও বিভিন্ন অজুহাতে কয়েক দফায় স্বামী সোহাগ তার স্ত্রী নুরজাহানের কাছ থেকে ৩০ লাখ টাকা নেয় বলে জানায় ভুক্তভোগী। গত ১৭ জানুয়ারি দু’জনের কর্মস্থলে চলে গেলে রাতে এসে

দেখতে পান স্বামী সোহাগ মিয়া বাসায় আসেননি। পাঁচ ছয়দিন সৌদি পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে অনেক জায়গায় খোঁজাখুজি করেও তাঁর কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। এর মধ্যে সোহাগের এক মামা (সৌদিপ্রবাসী) সবুজ মিয়ার মাধ্যমে জানতে পারেন সোহাগ বাংলাদেশে চলে গেছে। এরমধ্যে বাসায়

খোঁজ করে দেখতে পান তাঁর ড্রয়ারে থাকা রিয়েল ( নগদ প্রায় আড়াই লাখ টাকা ) ও সুকেসে থাকা বিভিন্ন সোনার গহনা (যার পরিমাণ প্রায় ১০ ভরি) নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনার প্রায় ২০ দিন পর তিনি দেশে এসে সরাসরি স্বামীর গ্রামের বাড়িতে এসে উঠেন। কথিত প্রতারক স্বামীর দেখা পেলেও স্ত্রী

হিসেবে তাকে অস্বীকার করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি-ধমকি দিয়ে লাপাত্তা হয়ে যায় ওই প্রতারক। এরপর থেকে গত এক সপ্তাহ ধরে তিনি স্বামীর অপেক্ষায় থাকলেও রবিবার স্বামীর বাবা ও পরিবারের অন্যরা তাঁকে গলাধাক্কা দিয়ে বের করার চেষ্টার পর ব্যাপক নির্যাতন ও মারধর করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

পরদিন সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ওই নারী নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে চিকিৎসা নিতে এসে ভর্তি হন। জানতে চাইলে নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, ঘটনার সুত্রপাত সৌদি আরবে।

তবে স্বামী সোহাগ এর বাড়িতে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় ওই নারীর কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে এ বিষযে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় : INTEL WEB