1. admin@dainik71bangla.com : dainik71bangla.com :
বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
স্কটল্যান্ড পার্লামেন্টের সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশী সিলেটের ফয়সল চৌধুরী রাজধানী ঢাকায় ভান্ডারিয়া উপজেলার ড্রীম বাংলা ফাউন্ডেশনের ইফতার মাহফিল আবারো পশ্চিম বাংলার মসনদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপদ্যায় আল কুরআনের খেদমত সবার ভাগ্যে থাকেনা – শাহ্ মোঃ ছাদিকুর রহমান নন্দীগ্রামে মমতা কে হারিয়ে শুভেন্দু জয়ী নন্দীগ্রামে ১২০১ ভোটে জয়ী মমতা ব্যানার্জি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ফের মমতা ব্যানার্জি সরকার গঠনে এগিয়ে ভান্ডারিয়ায় ড্রীম বাংলা ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের ঈদের সামগ্রী বিতরণ তাকবীরে তাহরীমা ও সালামের লামে মদ্দ করা সংক্রান্ত করোনাক্রান্তে বিশ্ব রেকর্ডে ভারত ৪ লক্ষ ছাড়িয়ে

তাকবীরে তাহরীমা ও সালামের লামে মদ্দ করা সংক্রান্ত

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১ মে, ২০২১
  • ৩৬ বার পড়া হয়েছে

মাওলানা সিরাজুল ইসলাম ফারুকী।। আল্লাহু আকবার বলে আমরা নামাজ শুরু করি । এটাকে তাকবীরে তাহরীমা বলা হয় ও আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ বলে নামাজ শেষ করি । এখানে বিশেষ বিবেচ্য বিষয় হলো-(الله)’আল্লাহু’ শব্দের (ل)’লাম’ এবং (السلام) ‘আসসালামু’ শব্দের (ل) ‘লাম’ এর মদ্দ করা নিয়ে ।আমরা জানি এখানে উভয় (ل) ‘লাম’ -এর মধ্যে তাজভীদ অনুযায়ী মদ্দে ত্বাবয়ী বা এক আলিফ লম্বা হবে । কিন্তু বড়ই পরিতাপের বিষয়, আমাদের কতিপয় ইমাম ছাহেবগণকে প্রায়ই দেখা যায়, তাঁরা উভয় (ل) ‘লাম’ এর মধ্যে এক আলিফের পরিবর্তে তিন/চার আলিফ পরিমাণ পর্যন্ত লম্বা করে থাকেন । অথচ তাঁরা বুঝতেই পারছেন না যে, তাঁদের এ মনগড়া মদের কারণে অনেক মুসল্লীদের নামাজ বিনষ্ট হচ্ছে এবং কারো কারো হয়তো মাকরুহে তাহরীমার সাথে আদায় হচ্ছে!বিষয়টি খোলাছা করে বলার চেষ্টা করছি । আশা করি এতে সকলেই উপকৃত হবেন ।ইমাম ছাহেব যদি তাকবীরে তাহরীমা বলতে গিয়ে (الله)’আল্লাহু’ শব্দের (ل) ‘লাম’ কে নির্ধারিত মদ (এক আলিফ) এর চেয়ে অতিরিক্ত মদ্দ আদায় করেন, তখন দেখা যায়, কোনো কোনো মুসল্লী ইমাম ছাহেবের অনুসরণ করতে গিয়ে ইমাম ছাহেবের আগেই (الله اكبر) ‘আল্লাহু আকবার’ বলে ফেলেন । এতে ক্ষতিটা হলো কি? তাঁর ইমাম ছাহেবের অনুসরণই করা হলোনা । যখন অনুসরণই হলোনা তখন তো তাঁর নামাজ শুরুই হলোনা । আর যার শুরুই নাই তাঁর তো শেষও নাই । (অর্থাৎ এই ব্যাক্তি ইমাম ছাহেবের সাথে নামাজ পড়েও জামাতে শামিল নয়) আবার, (السلام) ‘আসসালামু’ শব্দের (ل) ‘লাম’ কে যদি ইমাম ছাহেব নির্ধারিত মদের চেয়ে অতিরিক্ত লম্বা করেন, তাহলে দেখা যায় কিছু কিছু মুসল্লী ইমাম সাহেবের আগেই সালাম সম্পন্ন করে ফেলেন । ইমাম ছাহেবের আগে মুসল্লী যদি সালাম সম্পন্ন করেন, তাহলে তাঁর নামাজ মাকরুহে তাহরীমার সাথে আদায় হবে । ফলে মুসল্লীগণ মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন । তাঁরা যে খামখেয়ালিভাবে মুসল্লীদের নামাজের সাড়ে বারোটা বাজিয়ে দিচ্ছেন সেদিকে তাঁদের মোটেই খেয়াল নেই।এর দায়ভার সম্মানিত ইমাম ছাহেবগণ নিবেন কি? আমি মনে করি, এ ধরনের ইমাম ছাহেব গণকে ভালো ক্বারী ছাহেবের নিকটস্থ হয়ে মশক্ব করা বিশেষ প্রয়োজন।(লেখক-বিশিষ্ট মোফাসসির)

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

প্রযুক্তি সহায়তায় : INTEL WEB